• শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৩:২৬ অপরাহ্ন
  • [gtranslate]

রামগঞ্জে বিধবা ও এতিম দুই শিশুর সম্পদ আত্মসাৎ এর চেষ্টা

Reporter Name / ৫০১ Time View
Update : রবিবার, ২৩ জুলাই, ২০২৩

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে বিধবা মরিয়ম আক্তার ও তার এতিম দুই শিশুর সম্পত্তি কৌশলে জোরপূর্বক আত্মসাৎ এর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন বলে অভিযোগ উঠেছে মোবারক হোসেন, ফারুক হোসেন ও আব্দুল্লাহ শামিমের বিরুদ্ধে।
সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ৬নং লামচর ইউপির কাশিম নগর ডোনের বাড়ির মৃত আবুল কালামের ছেলে সৌদি প্রবাসী খোরশেদ আলম গত ৫ ডিসেম্বর ২০২২ সালে সৌদি আরবে স্ট্রোক করে মারা যান।
তার পর থেকে খোরশেদ আলমের রেখে যাওয়া ক্রয় কৃত সম্পত্তিসমূহ জোরপূর্বক আত্মসাৎ এর চেষ্টা ছালিয়ে আসছেন তার ভাই মোবারক হোসেন, ফারুক হোসেন ও ভাতিজা আব্দুল্লাহ শামিম। এমনটি অভিযোগ করেন মৃত খোরশেদ আলমের স্ত্রী মরিয়ম আক্তার।ব
এ বিষয়ে মরিয়ম আক্তার জানান, গত ৫ ডিসেম্বর আমার স্বামী খোরশেদ আলম স্টোকজনিত কারনে সৌদি আরবে মৃত্যু বরন করেন। এর পর থেকে আমার জীবনে নেমে আসে অন্ধকার। আমার এতিম এক ছেলে আবু তোহা আদনান (১৮মাস) এক মেয়ে সুমাইয়া আক্তার হাফসা (৬বছর) এদের নিয়ে স্বামীর বাড়িতে আমার বাসুরের বিল্ডিংয়ে একটি রুমে থাকতাম। কিন্তু কিছু দিন অতিবাহিত হলে তারা আমার উপর মানসিক অত্যাচার নির্যাতন চালায়। এক পর্যায় আমার নিরাপত্তার জন্য আমি বাবার বাড়িতে অবস্থান করি। তিনি বলেন, আমার স্বামীর যৌথ সম্পত্তি ছাড়া মৃত্যুর আগে ঢাকায় শনির আকড়া ঝমঝম টাওয়ারে একটি ফ্ল্যাট এবং কাঁচপুর ব্রীজের পাশে ২.৫কাটা সম্পত্তি এবং ঢাকা সোনারগাঁও ৪কাটা, মদিনা টাওয়ার শনির আকড়া ১০লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করেন। উক্ত সম্পত্তি আমার বাসুর মোবারক হোসেন, ফারুক হোসেন, ভাতিজা আব্দুল্লাহ শামিম সহ আত্মসাৎ এর চেষ্টা করছে এবং আমি ও আমার সন্তানদেন কোন সম্পত্তি দিবেনা বলে আমাকে হুমকি দেয়। আমি বর্তমানে নিরাপত্তাহীনতায় বসবাস করছি।
এই বিষয় অভিযুক্ত ফারুকের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কার্যালয়ে অভিযোগ করেছি। আমি কিছু বলতে ছাইনা। এ বিষয়ে চেয়ারম্যান সাহেব এবং ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি বলবেন।
৬নং লামচর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল খায়ের জানান, এই বিষয়ে ফারুক চেয়ারম্যানের কাছে অভিযোগ করেছে। আমি জানি বিচার প্রক্রিয়াধীন রয়েছে ।
৬নং লামচর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ফয়েজুল্লাহ জিসান পাটোয়ারী মুঠো ফোনে জানান, সম্পত্তি আত্মসাৎ এর চেষ্টার বিষয়টি সঠিক নয়। বরং ফারুক ইউনিয়ন পরিষদে দরখাস্ত দিয়ে জানিয়েছে, তার ভাইয়ের ক্রয়কৃত সম্পত্তি থেকে তার মা যে সম্পদের মালিক হয়েছে, সেগুলো তার ভাইয়ের এতিম ছেলে-মেয়েকে কিভাবে বুঝিয়ে দেওয়া যায়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category