• শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৪:২৭ অপরাহ্ন
  • [gtranslate]

রামগঞ্জে মসজিদের টাকা আত্নসাৎ করে উধাও ইমাম

Reporter Name / ১৫১৯ Time View
Update : শুক্রবার, ২৫ আগস্ট, ২০২৩

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ রামগঞ্জ বেসরকারী উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন জিয়াউল হক জামে মসজিদের জুম্মার নামাজের ইমাম মাওঃ শাহাদাত উল্লাহ মসজিদের টাকা আত্নসাৎ করে বিগত একমাস থেকে উধাও৷ এ নিয়ে মসজিদ কমিটি ও মুসল্লীদের মাঝে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়৷
ইমাম মাওলানা শাহাদাত উল্লাহ রামগঞ্জ উপজেলার ৪নং ইছাপুর ইউনিয়নের নয়নপুর গ্রামের মৃত মোখলেচুর রহমানের ছেলে৷
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মাও.শাহাদাত উল্লাহ ৬মাস আগে অত্র মসজিদের জুম্মার ইমাম হিসেবে যোগদান করেন৷ এ দিকে মসজিদ ভবনের নির্মান কাজ চলছে, তাই মসজিদ কমিটির লোকসহ মুসল্লীরা মসজিদের উন্নয়ন কাজে সবার সহযোগিতা কামনা করেন৷ এ সুযোগে ইমাম শাহাদাত উল্লা মসজিদের নির্মান কাজের জন্য বিভিন্ন এলাকায় ও ব্যক্তির কাছ থেকে টাকা পয়সা নিয়ে মসজিদ ফান্ডে জমা না দিয়ে নিজে আত্নাসাৎ করেন৷
বিগত জুলাই মাসের শেষের দিকে একজন ব্যক্তি মসজিদের জন্য ১ হাজার টাকা দিলে ইমাম ওই টাকা মেরে দেয়৷ এ বিষয়টি মসজিদের মোয়াজ্জেন দেখেন৷ পরে মোয়াজ্জেন মসজিদ কমিটি সাধারন সম্পাদক ও ক্যাশিয়ারকে জানান৷ তারা ইমামকে ওই এক হাজার টাকা মসজিদ ক্যাশে জমা দিতে বলেন৷ এ ঘটনার পর পর ইমাম কাউকে কিছু না জানিয়ে উধাও হয়ে যায়৷ এ দিকে ইমামের এ ঘটনা মুসল্লীদের মধ্যে জানা জানি হলে অনেকে মসজিদের জন্য ইমাম শাহাদাত উল্লাহর কাছে হাজার হাজারর টাকা দিয়েছেন বলে মসজিদ কমিটিকে জানান৷ এদিকে ইমাম শাহাদাত উল্লাহর নিজ এলাকার কয়েকজন জানান, প্রায় ১০ বছর পূর্বে মাও.শাহাদাত উল্লা স্থানীয় একটি মাদ্রাসায় শিক্ষকতাকালীন বলাৎকারে ধরা পড়ায় চাকরি হারান৷ ওই সময় তার স্ত্রী তাকে ছেড়ে চলে যায়৷ বর্তমানে সে একাকি থাকেন৷
মসজি কমিটি সাধারন সম্পাদক বাবুল মিয়া, ক্যাশিয়ার রহিমসহ মুসল্লীরা জানান, প্রায় ৫ সাপ্তাহ আগে মসজিদের জুমার নামাজের ইমাম মাওলানা শাহাদাত উল্লাহকে মসজিদে একব্যক্তি ১হাজার দিলে তিনি ক্যাশে তা জমা দেননি৷ বিষয়টি মোয়াজ্জেন আমাদের জানালে আমরা ওই টাকা ক্যাশে জমা দিতে বলি৷ এর পর থেকে তিনি কাউকে না জানিয়ে মসজিদে আসা বন্ধ করে দেয়৷ এখন খবর জানাজানি হলে কয়েকজন আমাদেরকে জানিয়েছেন তারাও মসজিদে টাকা দিয়েছে৷ ইমাম নিজে গিয়ে তাদেরকে মসজিদের নির্মান কাজ চলিতেছে বলে টাকা কালেশন করেছেন৷ কিন্তু তিনি এসব টাকা মসজিদে জমা দেননি৷ আমরা ইমামের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করছি৷ কিন্তু তাকে পাওয়া যাচ্ছে না৷ ওনি যে খারাপ তার নিজের এলাকার লোকজন আমাদের জানান৷
ইমাম মাওলানা শাহাদাত উল্লাহর সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করে তাকে পাওয়া যায়নি৷ এছাড়াও তার মোবাইল বন্ধ পাওয়া যায়৷


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category